আজ কমরেড স্ট্যালিনের ৫৭তম মৃত্যুবার্ষিকী

১৯২২-৫৩ পর্যন্ত সোভিয়েত ইউনিয়নের কমিউনিস্ট পার্টির সাধারণ সচিব ছিলেনস্ট্যালিন ১৮৯৯-১৭ সালের নভেম্বর পর্যন্ত গোপনে বিপ্লবী কর্মকাণ্ড সংগঠিত করেন। তিনি সবকিছুই করেছেন পার্টির জন্যে, বিপ্লবের জন্য করতেন। তিনি পত্রিকা সম্পাদনার সাথে যুক্ত ছিলেন। প্রথমে বাকুতে ( ব্রেদজোলা বা সংগ্রাম নামে পত্রিকা সম্পাদনা করতেন-১৯০১) এবং পরে প্রাভদার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক হনপ্রথম পার্টি কংগ্রেসের ১৯১২ সালে তিনি সেন্ট্রাল কমিটির সদস্য নির্বাচিত হন।

জার সরকার স্টালিনকে তিনবার রাষ্ট্রদোহিতার অভিযোগে সাইবেরিয়াতে নির্বাসিত করেপ্রথমবার নভাইদা নামে একটা ছোট্ট গ্রামে-মাত্র কয়েক মাস ছিলেন (১৯০৩)দ্বিতীয়বার পাঁচ বছরের জন্যে নির্বাসিত হলেন ছোট সাইবেরিয়ান শহর সলভাইচেগস্কে (১৯১০)স্টালিন মুসলীম বলশেভিক পার্টির প্রতিষ্ঠাতা ছিলেনউদ্দেশ্য ছিল ইরান এবং আজারবাইজানে বলশেভিক বিপ্লব১৯১৭-২০ সাল পর্যন্ত স্ট্যালিন এবং ট্রটস্কি দুজনেই বিপ্লবকে প্রতিষ্ঠিত করার জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন।

১৯২২ সালে পার্টির দশম পার্টি কংগ্রেসে, স্ট্যালিন জেনারেল সেক্রেটারি মনোনীত হলেন। এরপর থেকে তিনি ধীরে ধীরে ক্ষমতা চর্চা শুরু করলেন। রূপান্তরিত হলেন লৌহ মানবে। ১৯২৮ সালের মধ্যে নিরঙ্কুশ ক্ষমতার অধিকারী হলেন তিনি

স্ট্যালিন সোভিয়েত ইউনিয়নে কেন্দ্রীয় অর্থনীতি ব্যবস্থার প্রচলন করেন। সে সময় সোভিয়েত ইউনিয়ন ছিল অর্থনৈতিকভাবে অনগ্রসর স্টালিন দ্রুত শিল্পায়ন কৃষিকার্যের কেন্দ্রীকরণের মাধ্যমে পুরো দেশটিকে শিল্পোন্নত দেশে পরিণত হয়স্ট্যালিনের শাসনকালে সোভিয়েত ইউনিয়ন ২য় বিশ্বযুদ্ধে অংশ গ্রহণ করে। ফলে হিটলার-মুসোলিনীর পতন সম্ভব হয়েছিল। 

© 2017. All Rights Reserved. Developed by AM Julash.

Please publish modules in offcanvas position.